মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সেবার তালিকাঃ

1. প্রশিক্ষণ কর্মসূচিঃ

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম একাটি অন‌্যতম গুরুত্বপূর্ন কর্মসূচি। বেকার যুব সমাজকে দক্ষ মানব সম্পদে পরিনত করার লক্ষে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর প্রাতিষ্ঠানিক ও অপ্রাতিষ্ঠানিক ট্রেডে বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ  প্রদান করে থাকে। জেলা পর্যায়ে প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ  ও উপজেলা পর্যায়ে অপ্রাতিষ্ঠানিক  প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।

২. যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে পরিচালিত আবাসিক প্রশিক্ষণ কোর্সঃ

গবাদিপশু, হাঁস-মুরগী পালন, প্রাথমিক চিকিৎসা, মৎস‌্য চাষ ও কৃষি বিষয়ক প্রশিক্ষণ কোর্স ঃ

আবাসিক প্রশিক্ষণ কোর্সের মেয়াদ ০৩ মাস। ভর্তি ফি ১০০/- টাকা, জামানত-১০০/- টাকা ও ফেরৎযোগ‌্য ১০০/- টাকা দিতে হয়। প্রশিক্ষণে অংশগ্রহনকারী প্রত‌্যেককে মাসিক ১২০০/- টাকা প্রশিক্ষণ ভাতা প্রদান করা হয়। এ কোর্সে ন‌্যুনতম শিক্ষাগত যোগ‌্যতা ৮ম শ্রেনী  পাস।

মৎস‌্য চাষ প্রশিক্ষণ কোর্সঃ

আবাসিক প্রশিক্ষণ কোর্সের মেয়াদ ০১ মাস। ভর্তি ফি ১০০/- টাকা, জামানত-১০০/- টাকা ও ফেরৎযোগ‌্য ১০০/- টাকা দিতে হয়। প্রশিক্ষণে অংশগ্রহনকারী প্রত‌্যেককে মাসিক ১২০০/- টাকা প্রশিক্ষণ ভাতা প্রদান করা হয়। এ কোর্সে ন‌্যুনতম শিক্ষাগত যোগ‌্যতা ৮ম শ্রেনী  পাস।

ছাগল ভেড়া পালন এবং গবাদিপশুর প্রাথমিক চিকিৎসা বিষয়ক প্রশিক্ষণ কোর্সঃ

আবাসিক প্রশিক্ষণ কোর্সের মেয়াদ ০১ মাস। ভর্তি ফি ১০০/- টাকা, জামানত-১০০/- টাকা ও ফেরৎযোগ‌্য ১০০/- টাকা দিতে হয়। প্রশিক্ষণে অংশগ্রহনকারী প্রত‌্যেককে মাসিক ১২০০/- টাকা প্রশিক্ষণ ভাতা প্রদান করা হয়। এ কোর্সে ন‌্যুনতম শিক্ষাগত যোগ‌্যতা ৮ম শ্রেনী  পাস।

জেলা পর্যায়ে পরিচালিত প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ কোর্সঃ

মৎস‌্য চাষ ঃ অনাবাসিক এ প্রশিক্ষণের মেয়াদ ১ মাস। ভর্তি ফি ৫০/-। এ কোর্সে ন‌্যুনতম শিক্ষাগত যোগ‌্যতা ৮ম শ্রেনী  পাস।

পোষাক তৈরী ঃ অনাবাসিক এ প্রশিক্ষণের মেয়াদ ৩ মাস। ভর্তি ফি ৫০/-। এ কোর্সে ন‌্যুনতম শিক্ষাগত যোগ‌্যতা ৮ম শ্রেনী  পাস।

উপজেলা পর্যায়ে বিভিন্ন বিষয়ে ভ্রম‌্যমাণ প্রশিক্ষণ কোর্স সমূহঃ

কোর্স সমূহে মেয়াদ ৭-২১ দিন। প্রশিক্ষণে অংশগ্রহনকারীদের কোন কোর্স ফি দিতে হয় না। স্থানীয় চাহিদা ভিত্তিক এ প্রশিক্ষণ কোর্স পরিচালনা করা হয়ে থাকে।

জেলা পর্যায়ে পরিচালিত বিশেষ প্রশিক্ষণ কোর্স সমূহ ঃ

বিউাটিফিকেশন এ হেয়ার কাটিং প্রশিক্ষণ কোর্সঃ এটি ১ মাস মেয়াদি অনাবাসিক প্রশিক্ষণ কোর্স যাতে অংশগ্রহনের জন‌্য ১০০ টাকা কোর্স ফি দিতে হয়।এ কোর্সে ন‌্যুনতম শিক্ষাগত যোগ‌্যতা ৮ম শ্রেনী  পাস।

দারিদ্র‌্য বিমোচন ও ঋণ কর্মসূচি ঃ সম্পদের সীমাবদ্ধতার কারনে বেকার যুবরা দারিদ্রের মধ‌্যে বসবাস করে। তাদের নিজস্ব কোন সম্পদ ও কর্মসংস্থান না থাকায় তাদের পক্ষে খাদ‌্য, পুষ্টি, স্বাস্থ‌্য ও শিক্ষার মত  মৌলিক চাহিদাগুলো পুরন করা সম্ভব হয় না। দক্ষতাবৃদ্ধমুলক প্রশিক্ষণ ও সহজ শর্তে ঋণ প্রদানের মাধ‌্যমে এহেন মানবেতর অবস্থা নিরসন এবং বেকার যুবদের জন‌্যে একটি সুখকর জীবনের ব‌্যবস্থা করা দারিদ্র‌্য বিমোচন ও ঋণ কর্মসুচির মূখ‌্য উদ্দেশ‌্য। 

ক) পরিবারভিত্তিক কর্মসংস্থান কর্মসূচিঃ

পরিবারভিত্তিক ঋণ কার্যক্রমের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হলো পরিবারিক বন্ধনকে সুদৃঢ় করে বেকার দরিদ্র জনগোষ্ঠির আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের জন্য দক্ষতাবৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণ ও ঋণ প্রদানের মাধ্যমে স্ব-কর্মসংস্থান সৃষ্টি । বরগুনা জেলার ৩টি উপজেলায় এ কর্মসূচি চালু আছে। এ কর্মসূচির আওতায় পরিবারের ঐতিহ্যগত পেশাকে কাজে লাগিয়ে বেকারত্ব নিরসন ও পারিবারিক সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্য সমুন্নত রেখে কার্যক্রম সম্প্রসারণ, জীবনযাপনের মান ধাপে ধাপে উন্নয়নকল্পে পরিবারে সঞ্চয় অভ্যাস গড়ে তোলা এবং নারীর ক্ষমতায়ন, শিক্ষা, স্বাস্থ্য-পরিচর্যা, পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা এবং পরিবেশ উন্নয়নে জনগোষ্ঠিকে উদ্বুদ্ধ করা হয়। পরিবারভিত্তিক ঋণ কার্যক্রমের আওতায় একই পরিবারের অথবা নিকট আত্মীয় বা প্রতিবেশী পরিবারের পরস্পরের প্রতি আস্থাভাজনদের নিয়ে ৫ সদস্যের গ্রম্নপ গঠন করা হয়। একই গ্রামের স্থায়ী নিবাসী এরূপ ৮ থেকে ১০টি গ্রুপ নিয়ে একটি কেন্দ্র গঠিত হয়। কেন্দ্রের প্রত্যেক সদস্যকে ১ম, ২য়, ৩য়, দফায় যথাক্রমে সর্বোচ্চ ১০০০০/-, ১৫০০০/- ও ২০০০০/- টাকা হারে ঋণ প্রদান করা হয়। এছাড়া ৩য় দফা পর্যন্ত সফল ঋণ পরিশোধকারীর আর্থ-সামাজিক অবস্থা বিবেচনা করে একটি কেন্দ্র হতে সর্বোচ্চ ০৫ জনকে আত্মকর্ম ঋণের নীতি পদ্ধতি অনুসরণ করে এন্টারপ্রাইজ ঋণ প্রদানের ব্যবস্থা রয়েছে। অধিদপ্তরের কর্মচারীগণ গ্রাম পর্যায়ে ঋণ বিতরণ এবং কেন্দ্র থেকে ঋণের কিস্তি সংগ্রহ করে। গ্রেস পিরিয়ড অর্থাৎ ঋণ পরিশোধের প্রস্ত্ততি সময় অতিক্রম করার পর সাপ্তাহিক কিস্তিতে ঋণের অর্থ আদায় করা হয়। কোন উপকারভোগীকে ঋণ গ্রহণ ও কিস্তি পরিশোধের জন্য অফিসে আসার প্রয়োজন হয় না। মূলধন পাওনার উপর ১০% (ক্রমহ্রাসমান) হারে সার্ভিস চার্জ আদায় করা হয়। এখানে সাপ্তাহিক কিস্তিতে পরিশোধিত আসলের উপর পরবর্তীতে আর কোন সার্ভিস চার্জ আদায় করা হয় না বিধায় মেয়াদ শেষে গড় সার্ভিস চার্জের হার প্রকৃত হিসেবে ৫% দাঁড়ায়। তবে মনে রাখা প্রয়োজন যাঁরা সময়মত সাপ্তাহিক কিস্তি পরিশোধ করেন তারাই সার্ভিস চার্জের ক্ষেত্রে বর্ণিত ৫% এর সুযোগ পেয়ে থাকেন। এ ঋণ প্রাপ্তির জন্যে কোন প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণের প্রয়োজন হয় না। তবে মনোনীত সদস্যদের ৫দিনব্যাপী আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও ঋণ ব্যবস্থাপনা পদ্ধতির উপর গ্রাম পর্যায়ে কেন্দ্রভিত্তিক ওরিয়েন্টেশনের ব্যবস্থা  করা হয়। পরিবারভিত্তিক ঋণ কার্যক্রমের ক্রমপুঞ্জিত ঋণ আদায়ের হার ৯৫%।

 

খ) যুব প্রশিক্ষণ ও আত্মকর্মসংস্থান কর্মসূচিঃ

           এ কর্মসূচির আওতায়  জেলাসহ ৬টি উপজেলায় এ কর্মসূচি চালু আছে। এ কর্মসূচির আওতায় জেলা সদরে উপ-পরিচালকের কার্যালয়ে বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদানের ব্যবস্থা রয়েছে। এসব প্রশিক্ষণ কোর্সের মেয়াদ ১ মাস হতে ৬ মাস পর্যন্ত। এছাড়া স্থানীয় চাহিদার ভিত্তিতে বিভিন্ন ট্রেডে স্বল্পমেয়াদি প্রশিক্ষণ প্রদানের জন্য ৪৯৬টি উপজেলায় স্বল্প মেয়াদি অপ্রাতিষ্ঠানিক ভ্রাম্যমাণ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা রয়েছে।  এ কর্মসূচির আওতায় প্রশিক্ষিত বেকার যুবদেরকে আত্মকর্মসংস্থানের লক্ষ্যে প্রাতিষ্ঠানিক/ অপ্রাতিষ্ঠানিক ট্রেডে একক (ব্যক্তিকে) ঋণ প্রদান করা হয়। প্রাতিষ্ঠানিক ট্রেডে একজন প্রশিক্ষিত যুবক/যুবমহিলাকে ৫০,০০০/- থেকে ১,০০,০০০/- টাকা পর্যন্ত এবং অপ্রাতিষ্ঠানিক ট্রেডে ৩০,০০০/- থেকে ৫০,০০০/- টাকা পর্যন্ত ঋণ প্রদান করা হয়। জেলা ও উপজেলায় দুটি কমিটির মাধ্যমে যথাক্রমে প্রাতিষ্ঠানিক ও অপ্রাতিষ্ঠানিক ঋণ অনুমোদন করা হয়। ঋণ প্রাপ্তির জন্য একজন ঋণ গ্রহিতাকে ২ জন জামিনদার নিশ্চিত করতে হয় এবং প্রাতিষ্ঠানিক/ অপ্রাতিষ্ঠানিক ট্রেডে প্রশিক্ষণ গ্রহণ বাধ্যতামূলক। গ্রেস পিরিয়ড অর্থাৎ ঋণ পরিশোধের প্রস্ত্ততি সময় অতিক্রম করার পর বিভিন্ন ট্রেডের জন্য নির্ধারিত মেয়াদে মাসিক কিস্তিতে ঋণের অর্থ আদায় করা হয়। মঞ্জুরকৃত ঋণ পাওনার উপর ১০% (ক্রমহ্রাসমান) হারে সার্ভিস চার্জ আদায় করা হয়। এখানে মাসিক কিস্তিতে পরিশোধিত আসলের উপর পরবর্তীতে আর কোন সার্ভিস চার্জ আদায় করা হয় না বিধায় মেয়াদ শেষে গড় সার্ভিস চার্জের হার প্রকৃত হিসেবে ৫% দাঁড়ায়। তবে মনে রাখা প্রয়োজন যাঁরা সময়মত মাসিক কিস্তি পরিশোধ করেন তারাই সার্ভিস চার্জের ক্ষেত্রে বর্ণিত ৫% এর সুযোগ পেয়ে থাকেন। 

বেকার যুবদের কারিগরি প্রশিক্ষণ প্রকল্প (২য় পর্ব )- এর মাধ্যমে বাস্তবায়িত প্রশিক্ষণ কোর্সসমূহঃ

 

কম্পিউটার বেসিক কোর্সঃ

          অনাবাসিক এ প্রশিক্ষণ কোর্সের মেয়াদ ৬ মাস। এ কোর্সে প্রশিক্ষণের জন্য প্রত্যেক প্রশিক্ষণার্থীকে ১০০০/- টাকা কোর্স ফি প্রদান করতে হয়। কম্পিউটার বেসিক কোর্সে ভর্তির জন্য ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা এইচ,এস,সি পাশ।

ইলেকট্রনিক্স প্রশিক্ষণ কোর্সঃ

         অনাবাসিক এ প্রশিক্ষণ কোর্সের মেয়াদ ৬ মাস। এ কোর্সে প্রশিক্ষণের জন্য প্রত্যেক প্রশিক্ষণার্থীকে ৩০০/- টাকা কোর্স ফি প্রদান করতে হয়। ইলেকট্রনিক্স কোর্সে ভর্তির জন্য ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা এস,এস,সি পাশ।

ইলেকট্রিক্যাল এন্ড হাউজওয়্যারিং কোর্সঃ

          অনাবাসিক এ প্রশিক্ষণ কোর্সের মেয়াদ ৬ মাস। এ কোর্সে প্রশিক্ষণের জন্য প্রত্যেক প্রশিক্ষণার্থীকে ৩০০/- টাকা কোর্স ফি প্রদান করতে হয়। ইলেকট্রিক্যাল এ- হাউজ ওয়্যারিং কোর্সে ভর্তির জন্য ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা অষ্টম শ্রেণি পাশ।

রেফ্রিজারেশন এন্ড এয়ারকন্ডিশনিং কোর্সঃ

         অনাবাসিক এ প্রশিক্ষণ কোর্সের  মেয়াদ ৬ মাস। এ কোর্সে  প্রশিক্ষণের জন্য প্রত্যেক প্রশিক্ষণার্থীকে ৩০০/- টাকা কোর্স ফি প্রদান করতে হয়। রেফ্রিজারেশন এন্ড এয়ার-কন্ডিশনিং প্রশিক্ষণ কোর্সে ভর্তির জন্য ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা এস,এস,সি পাশ।

 

 

 

 

         

 

 

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter